ছাত্রলীগের বাধা উপেক্ষা করে আন্দোলনে যোগদান হলের শিক্ষার্থীদের - জনতার আওয়াজ
  • আজ দুপুর ১২:৫৬, শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

ছাত্রলীগের বাধা উপেক্ষা করে আন্দোলনে যোগদান হলের শিক্ষার্থীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: বৃহস্পতিবার, জুলাই ৪, ২০২৪ ৪:৩৬ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: বৃহস্পতিবার, জুলাই ৪, ২০২৪ ৪:৩৬ অপরাহ্ণ

 

ঢাবি প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের বাধাকে উপেক্ষা করে কোটা বিরোধী আন্দোলনের মিছিলে যোগ দিয়েছে হলে থাকা শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে এ ঘটনা ঘটে।

হাইকোর্ট কর্তৃক মুক্তিযোদ্ধা কোটা পুনর্বহালের আদেশের বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলনের অংশ চালিয়ে যাচ্ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী প্রত্যেক হল বেলা ১১টায় দলে দলে জড়ো হতে থাকেন শিক্ষার্থীরা। তবে একাধিক হলে কোটা আন্দোলনকারীদেরকে বাধা দেয় ছাত্রলীগ। এই কার্যক্রমে হল ছাত্রলীগের পদপ্রত্যাশী নেতাদেরকে নেতৃত্ব দতে দেখা যায়।

সার্জেন্ট জহুরুল হক হল, স্যার এ এফ রহমান হল ও বিজয় একাত্তর হলের গেটে অবস্থান নিয়েছে ছাত্রলীগের ক্যান্ডিডেটরা। কবি জসিম উদ্দিন হলের চারতলায় আটক রাখা হয় শিক্ষার্থীকে। সূর্যসেন হলের শিক্ষার্থীরা এক জোট হয়ে মিছিল নিয়ে আসে হলগেটে কিন্তু ছাত্রলীগ নেতারা তাদের ব্যানার ছিনিয়ে নিয়ে শিক্ষার্থীদের হুমকি দেয়। একইসাথে হল গেট তালা মেরে দেয়। হলে মাইক নিয়ে কোটা আন্দোলনকারীরা প্রচারণা করতে গেলে হল থেকে বের করে দেয়া হয় বলে জানায় শিক্ষার্থীরা।

এদিকে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে থেকে মিছিল বের করে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করতে থাকে জড়ো হওয়া শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি হল পাড়ার দিকে গেলে ছাত্রলীগের বাঁধাকে উপেক্ষা করেই মিছিলে যোগদান করতে থাকে আটক থাকা শিক্ষার্থীরা।

পরে মিছিলটি সূর্যসেন হলের রাস্তার পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় ছাত্রলীগের এমন কার্যক্রমে ‘ভুয়া ভুয়া’ স্লোগান দিতে থাকেন আন্দোলরত শিক্ষার্থীরা। মিছিল দেখে আটক থাকা শিক্ষার্থীরা গেট খুলে বের হয়ে পড়েন। এসময় অনেককে জানা দিয়েও বের হতে দেখা যায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূর্যসেন হলের ৪র্থ বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, ক্যাম্পাস থেকে বের হয়ে আমরা চাকরির জন্য পড়াশোনা করবো। কিন্তু এখন কোটা বাতিল না কর‍তে পারলে আমরাসহ ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ভুগতে হবে। আমরা আমাদের দাবি আদায়ের আন্দোলনে যেতে চাই কিন্তু ছাত্রলীগ হল থেকে বের হতে দিচ্ছিল না। ভিতরের ও বাহিরের গেট আটকে দিয়ে তারা হল গেটে অবস্থান করছিল। হলের পাস দিয়ে মিছিল যাওয়ার সময় সবাই ভুয়া ভুয়া স্লোগান দিতে থাকলে আমরা একযোগে সমাই মিলে গেট খুলে মিছিলে যোগ দেই।

বিজয় একাত্তর হলের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের হলের ছাত্রলীগের ক্যান্ডিডেট ভাইয়েরা গেটে দাঁড়িয়ে আছে। আমাদেরকে বের হতে দিচ্ছিল না। মিছিলের আওয়াজ শুনতে পেলে আমি টিউশনে যাওয়ার কথা বলে চলে আসি।

সূর্যসেন হলের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক চাকরি প্রত্যাশী শিক্ষার্থী বলেন, দুইদিন পর চাকরির পরীক্ষা। কোটা বাতিল না করলে উপায় থাকবে না। আন্দোলনে যাব কিন্তু গেটে এসে দেখি তালা দেওয়া। পরে আমি স্টাফ পরিচয় দিয়ে বের হয়ে আসি।

সূর্যসেন হলের এক দারোয়ান বলেন, আমরা গেটের দায়িত্বে আছি ঠিকই কিন্তু হল গেটে ছাত্রলীগ তালা মেরেছে। পোলাপানদের মিছিলে যেতে না করেছে। এখন হল চালায় ছাত্রলীগ আমাদের কাছে নিয়ন্ত্রণ নেই। পরে লম্বা একটা মিছিল আসলে ভেতরের সবাই ধাক্কাধাক্কি করে বের হয়ে যায়।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ