ঝিনাইদহে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে নিহত এক - জনতার আওয়াজ
  • আজ ভোর ৫:৩৪, বুধবার, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

ঝিনাইদহে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে নিহত এক

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: বৃহস্পতিবার, মার্চ ৩, ২০২২ ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: বৃহস্পতিবার, মার্চ ৩, ২০২২ ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ
ঝিনাইদহে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে হুসাইন নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন জুলফিককার ও ফিরোজ নামে আপন দুই ভাই। তাদের শরীরের বিভন্ন স্থানে ছুরির আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। গতরাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার মান্দারবাড়িয়া গ্রামের মাদ্রাসার ওয়াজ মাহফিলের মেলার মাঠে এ ঘটনা ঘটে। তারা হলেন, ঝিনাইদহ পৌর এলাকার ইসলামপাড়ার মনিরুল ইসলামের ছেলে হুসাইন (২০), একই এলাকার নজরুলের ছেলে ফিরোজ (২০) ও জুলফিককার (১৮)। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় হুসাইন ও জুলফিককারকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ভর্তি হওয়ার ২০ মিনিট পরই হুসাইন মারা যায় এবং জুলফিককারের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যায়।চুরিকাঘাতে আহত ফিরোজ হোসেন বলেন, আমরা দুই ভাই ঝিনাইদহ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এ বছর এস এসসি পাশ করেছি। আমাদেরই বন্ধু হুসাইন। হুসাইন তার বাবার সাথে ব্যবসা করে। আমরা বন্ধুরা মিলে মান্দারবাড়িয়া গ্রামের ওয়াজ মাহফিলের মেলার মাঠে ঘুরছিলাম। সেসময় আমাদের মধ্যে তাদের ধাক্কা লাগার ঘটনা ঘটে। সেসময় তাদের মধ্য থেকে জিহাদী নামে এক ফল বিক্রেতা এলোপাতাড়ি সেভেন গিয়ার (ছুরি) দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত করতে থাকে। তার সাথে আরও অনেকে ছিল। তাদেরকে আমরা ওই ভাবে চিনি না। তবে অপরিচিত এক ব্যক্তি ছুরি কেড়ে না নিলে অবস্থা আরও ভয়াবহ হতে পারতো।এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানার এস আই এমদাদ বলেন, ছুরিকাঘাতের ঘটনায় হুসাইন নামে এক যুবক মারা গেছেন। জুলফিককার ও ফিরোজ আপন দুই ভাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে কি কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ