নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন এর পূর্ণ বক্তব্য - জনতার আওয়াজ
  • আজ দুপুর ১২:০৩, সোমবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২০শে জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন এর পূর্ণ বক্তব্য

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: শনিবার, মার্চ ৫, ২০২২ ১১:০২ পূর্বাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: শনিবার, মার্চ ৫, ২০২২ ১১:০২ পূর্বাহ্ণ

 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

সুপ্রিয় সাংবাদিক ভাই ও বোনেরা,
আসসালামু আলাইকুম। আমাদের ডাকে আজকের প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত হওয়ার জন্য আপনাদের সবাইকে জানাচ্ছি আমার কৃতজ্ঞতা ও আন্তরিক শুভেচ্ছা।
নিশিরাতে ভোট ডাকাতির সরকার এখন শেষ বেলায় এসে নিত্যপণ্যের বাজার ডাকাতি শুরু করেছে। করোনার অভিঘাতে বিপর্যস্ত মানুষ জীবনযুদ্ধে পরাজিত সৈনিকের মতো ধুঁকে ধুঁকে চলছে। দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতিতে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণী নীরবে অশ্রুপাত করছেন। অল্প দামে পণ্য বিক্রির সরকারি প্রতিষ্ঠান ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) ট্রাকের পাশে লাইনে বুভুক্ষ মানুষের মিছিল চলছে। মধ্যবিত্তরা টিসিবির ট্রাকের পিছনে ছুটছে আর নিম্নবিত্ত, গরীব, অতি গরীব, দারিদ্র্য সীমার নিচের লোকজন অর্ধাহারে অনাহারে কঙ্কালসার হচ্ছে। দেশে দুর্ভিক্ষ শুরু হয়েছে, এ অবস্থা চলতে থাকলে অচিরেই ৭৪ এর দুর্ভিক্ষ ফিরে আসবে। টিসিবির এই লাইন ১৯৭৪ সালের দুর্ভিক্ষে খাদ্যের জন্য মানুষের হাহাকার আর ছোটাছুটির চিত্রের মতোই। মানুষখেকো বাঘের মতো দুর্ভিক্ষ সদর্পে সারা দেশ ছেয়ে যাচ্ছে। আজকের দৃশ্যপট এমন যে, টিসিবির লাইনে দাঁড়িয়ে বিবিসিকে এক মধ্যবিত্ত বলছেন,”লজ্জা করলে তো পেটে ভাত আসবে না।”
আর রংপুরের তারাগঞ্জের বাজারে দাঁড়িয়ে দামের কষাঘাতে পিস্ট নিরন্ন অসহায় সাদেকুল সাংবাদিকদের বলছেন, ‘নুন দিয়া পান্তা ভাত খায়া বাঁচির নাগবে’।
আর সরকার নিজেদের সিন্ডিকেটের হাতে বাজার লুটপাটের লাইসেন্স দিয়ে সরকারের অটো ভোটের মন্ত্রীরা দ্রব্যমূল্য নিয়ে মশকরা করছেন। বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলছেন, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকারের কিছুই করার নেই। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলছেন, বর্তমান সরকারের ১৩ বছরে দেশের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা প্রায় তিনগুণ বেড়েছে। দ্রব্যমূল্য খুব কমই বেড়েছে। ক্রয় ক্ষমতা বেড়েছে শুধুমাত্র আওয়ামী লোকদের, এ কথাটি তথ্যমন্ত্রী এড়িয়ে গেছেন। লুটেরাদের খনিতে বসে নিম্ন ও মধ্যবিত্তের মুখ ঢেকে টিসিবির গাড়ির পিছনে ছোটার দৃশ্য তিনি দেখতে পান না, ক্ষুধার্ত মানুষের বোবাকান্নাও শুনতে পান না।
সৈয়দ মুজতবা আলীর পাদটীকা গল্পের মতো হয়েছে তাদের অবস্থা। পন্ডিত মশায় তার আট সদস্যের পরিবারের জীবন ধারণের জন্য মাসিক বেতন পান পঁচিশ টাকা আর সাহেবের তিন ঠ্যাঙ ওয়ালা কুত্তার জন্য মাসে খরচ হয় পঁচাত্তর টাকা। সুতরাং সর্বভুক আওয়ামী দুর্নীতিবাজ নেতাকর্মীদের কথা এমনই হবেই, যারা লক্ষ লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে তাদের মুখ থেকেই এসবই শোনা যাবে। সব সম্পদ গ্রাস করে নেয়া আওয়ামী সাহেবরা যা ইচ্ছা তাই বলছেন। সব জেনে বুঝেই তারা নিশ্চিন্তে নিদ্রা যাচ্ছেন, আর জনগণকে বিভ্রান্ত করতে অসত্য কথা বলছেন। মন্ত্রীদের কথাবার্তায় প্রমাণিত হয় সরকার নিজেই দুর্নীতিবাজদের একটা সিন্ডিকেট। সেই কারণেই তারা পরিশীলিত রাষ্ট্রনেতাদের মতো কথা বলেন না। হরিলুটের সরকার জনগণের ‘কালেক্টটিভ ফিউচার’ বরবাদ করছে। দুর্নীতির বৃদ্ধি বিকাশের আদর্শস্থল হচ্ছে আওয়ামী লীগ।
সচেতন সাংবাদিক ভাই বোন বন্ধুরা,
দেশ যেন এখন মগের মুল্লুক। কোথাও কোনো জবাবদিহিতা নেই। দুর্নীতি, লুটপাট, অনাচার, অবিচার চলছে বল্গাহীন। দ্রব্যমুল্যের বাজারে আগুন লাগার ফলে
জনগণের যখন নাভিশ্বাস অবস্থা তখন ‘মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা’য়ের মতো অসহ্য অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে জ্বালানি তেল ও এলপিজি গ্যাসের দাম। বাড়ানো হয়েছে গণপরিবহনের ভাড়া। মানুষ কি খাবে, কি না খাবে ? দেশে যখন শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি চলছে তখন দ্রব্যমূল্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ না করে প্রতিদিনের মতো ওবায়দুল কাদের সাহেব মিথ্যার ঢোল বাজিয়েই যাচ্ছেন।
প্রিয় সাংবাদিক বন্ধুগণ,
দেশে চলছে এক নীরব দুর্ভিক্ষ পরিস্থিতি। অপরদিকে সারা বিশ্বে বিরাজ করছে এক যুদ্ধাবস্থা। এমন পরিস্থিতিতে ৫০ জনের এক বিশাল বহর নিয়ে নিশিরাতের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রীয় টাকা খরচ করে কি কারণে আরব আমিরাতে যাচ্ছেন এ নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। গত কয়েক বছর ধরে বিশেষ করে আরব আমিরাতে শেখ হাসিনার ঘন ঘন সফরের রহস্য কি ? আমরা আশা করি, সরকারের মন্ত্রীরা বিষয়টি জনগণের সামনে খোলাসা করবেন। গত এক যুগে শেখ হাসিনা কেন বারবার আরব আমিরাত সফর করছেন এর নেপথ্যে কোনো বিশেষ কারণ রয়েছে কিনা সেটিও সাহস থাকলে জনসমক্ষে প্রকাশ করবেন।
বন্ধুরা,
গত পরশু বৃহস্পতিবার ডিবি পুলিশ পরিচয়ে গাজীপুর মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান ইলিয়াসকে তুলে নিয়ে গেছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তার কোন হদিস মিলছে। সে ডিবি পুলিশের কাছেই আছে, কিন্তু তারা সেটি স্বীকার করছে না। তাকে অবিলম্বে জনসমক্ষে হাজির করার জন্য আহবান জানাচ্ছি।
গত ২ মার্চ ২০২২, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে বিএনপি’র কেন্দ্র ঘোষিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূচি সারাদেশে জেলা সদরে পালন করার সময় পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীরা এক হিংসাযুদ্ধে অবতীর্ণ হয়। বর্বর সরকার পেশীশক্তি দিয়ে জনগণকে দমন করতে চাচ্ছে।
একই দিন সাভারে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ অতর্কিতে হামলা চালিয়ে ৩০ জনের অধিক নেতাকর্মীকে আহত ও তিনজনকে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও পুলিশ আমি (রিজভী আহমেদ), নিপুণ রায় চৌধুরী, ডাঃ দেওয়ান সালাহউদ্দিন, আবু আশফাকসহ প্রায় দেড় শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা দায়ের করেছে।
নড়াইল জেলাধীন লোহাগড়া উপজেলা বিএনপি’র সদস্য সচিব সুলতানুজ্জামান সেলিম, পৌর যুবদলের আহবায়ক রবিউল ইসলাম, উপজেলা বিএনপি’র সদস্য রেজাউল করিম মিন্টুকে গতরাতে পুলিশ সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে বাসা থেকে গ্রেফতার করেছে।
বিক্ষোভ মিছিলকে কেন্দ্র করে আজ নোয়াখালী জেলাধীন সেনবাগ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান তুহিন, উপজেলা যুবদল সভাপতি মোহাঃ নুর নবী, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান মাসুদ, উপজেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক মোহাঃ আরিফকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
বিক্ষোভ সমাবেশে আওয়ামী সন্ত্রাসী ও পুলিশের যৌথ আক্রমণে মাগুরা জেলা বিএনপির ১৪ জন নেতাকর্মী আহত হয়। এদের মধ্যে সাইফুল নামে একজন নেতা গুরুতর আহত অবস্থায় ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এছাড়া জেলা বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম আহবায়ক-এ্যাড. রোকনুজ্জামান, জেলা যুবদল সভাপতি-সাখাওয়াত হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা-তুহিন, গোলাম কিবরিয়া, জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক- আনিছুর রহমান মিন্টুসহ মোট ১৩ জন বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিয়েছে।
২ মার্চ ২০২২, পটুয়াখালীতে পুলিশ ও আওয়ামী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় আহত নেতাকর্মীরা হলেন-
শফিউল বাশার উজ্জ্বল (সভাপতি, পটুয়াখালী জেলা ছাত্রদল), মোঃ জাকারিয়া আহমেদ (আহবায়ক সদর উপজেলা ছাত্রদল), রেজা (সদস্য সচিব, মহিপুর থানা ছাত্রদল), আপেল মাহমুদ (আহবায়ক, বাউফল সরকারি কলেজ ছাত্রদল), মোঃ আতিকুল্লাহ সোহাগ (যুগ্ম আহবায়ক, মির্জাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদল), শাকিল হোসেন ইমরান (সহ-সভাপতি, গলাচিপা উপজেলা ছাত্রদল), মোঃ কাওসার (ছাত্রনেতা, মির্জাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদল), মোঃ নাঈম ইসলাম (ছাত্রনেতা, মির্জাগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদল), মোঃ আঃ কাদের বাবু (ছাত্রনেতা, দুমকি), মোঃ আক্কাস (সভাপতি পদপ্রার্থী আংগারিয়া ইউনিয়ন ছাত্রদল, দুমকি), কাজি মাহাবুবুর (আহবায়ক, সদর থানা ছাত্রদল), বশির (আহবায়ক, মরিচবুনিয়া, মোস্তফা (অফিস সহকারী-বিএনপি), নিরমল সাহা (মুরাদিয়া), সাকিল (মুরাদিয়া), সুজন গাজী (মুরাদিয়া), নুরুজ্জামান মুন্সি (কালিকাপুর),মাসুদ (কালিকাপুর)সহ ৪৭ জন নেতাকর্মীকে আহত করেছে পুলিশ।
একই ইস্যুতে আজ দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে কর্মসূচি পালনের জন্য প্রস্তুতি সভা করতে গেলে উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি নিপূণ রায়সহ নেতাকর্মীদের ঘেরাও করে রাখে পুলিশ । বিএনপি’র কার্যালয় পুলিশ সারারাত ঘেরাও করে রাখলে কোন নেতাকর্মীই কার্যালয় থেকে বের হতে পারেনি। খবর পেয়ে দলের স্থায়ী কমিটির বাবু গয়েশ^র চন্দ্র রায় কেরানীগঞ্জ বিএনপি কার্যালয়ে ছুটে যান এবং পুলিশী বাধা উপেক্ষা করে আজ কর্মসূচি পালন করেন।
লালমনিরহাট জেলা বিএনপি’র উদ্যোগে বিক্ষোভ চলাকালে হাতিবান্ধা উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক রুবেল ইসলাম, সদস্য সচিব আবদুল্লাহ আল মামুনসহ নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অতর্কিতে হামলা চালায় এবং শতাধিক নেতাকর্মীকে আহত করে।
আজ মুন্সীগঞ্জ জেলাধীন লৌহজং উপজেলা বিএনপি’র উদ্যোগে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনকালে পুলিশ অতর্কিতে হামলা চালিয়ে ২৫/৩০ জন নেতাকর্মীকে আহত ও একজন বিএনপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে।
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় আজ কর্মসূচি পালনকালে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে।
পুলিশের এই ন্যাক্কারজনক ঘটনায় আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি ও আহতদের আশু সুস্থতা কামনা করছি।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ