প্রেমের টানে মালয়েশিয়ান তরুণী কিশোরগঞ্জে - জনতার আওয়াজ
  • আজ ভোর ৫:৩৮, বুধবার, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

প্রেমের টানে মালয়েশিয়ান তরুণী কিশোরগঞ্জে

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: শুক্রবার, মার্চ ৮, ২০২৪ ১:২২ পূর্বাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: শুক্রবার, মার্চ ৮, ২০২৪ ১:২২ পূর্বাহ্ণ

 

কিশোরগঞ্জ থেকে

কাজের সূত্রে ৯ বছর আগে মালয়েশিয়া যান কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলার যুবক দ্বীন মোহাম্মদ (২৮)। রাজধানী কুয়ালালামপুরের একটি দোকানে চাকরি করার সময় ২০১৯ সালে পরিচয় হয় মালয়েশিয়ান তরুণী মিসনেওয়াতী বিনতে মিসকের (২৫) সঙ্গে। এর সূত্র ধরে ভালোলাগা তৈরি হয়। এরপর তারা ফোন নম্বর বিনিময় করেন। এভাবে মিসকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে দ্বীন মোহাম্মদের।
মালয়েশিয়ায় তিন বছর প্রেম করার পর একপর্যায়ে সম্পর্ককে পূর্ণতা দিতে সম্মত হন উভয়েই। মালয়েশিয়াতেই মিসকের পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে হয় তাদের। এ পরিস্থিতিতে পরিবারের সঙ্গে বিয়ের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে তাকে বাংলাদেশে নিয়ে আসেন দ্বীন। পরে ওইদিনই দ্বীন মোহাম্মদের গ্রামের বাড়ি করিমগঞ্জ পৌরসভার ঘোনাপাড়ায় এসে বাংলাদেশের রীতিতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারেন তারা। ১ লাখ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়েতে দ্বীন মোহাম্মদের পরিবারের লোকজন ছাড়াও আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধব উপস্থিত ছিলেন।
দ্বীন মোহাম্মদ করিমগঞ্জ পৌরসভার ঘোনাপাড়া এলাকার মো. রেনু মিয়ার ছেলে এবং মিসকে মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরের ক্যালকলামপরায় সিরাম্বুল গ্রামের মিসকে বিন আলীর মেয়ে। এ খবরে বউ দেখার জন্য দ্বীনের বাড়িতে মানুষের ভিড় লেগেই রয়েছে।

এ বিষয়ে তিনি জানান, মূলত পরিবারের ইচ্ছে পূরণের জন্যই বাংলাদেশে এসে তাদের বিয়ের আয়োজন করা। দুই দেশের বাসিন্দা হিসেবে তাদের মধ্যে ভৌগোলিক দূরত্ব থাকলেও হৃদয়ের টানে তারা একত্রে মিলিত হয়েছেন। মিসকে জানান, তারা দুই দেশের বাসিন্দা হলেও উভয়েই ইসলাম ধর্মের অনুসারী। ফলে ধর্মীয় কোনো বিধিনিষেধ তাদের প্রেম কিংবা বিয়েতে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি। এখানকার মানুষজন খুব ভালো। দ্বীনের বাবা-মাসহ পরিবারের সবাই আমাকে আপন করে নিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ