বাংলা ব্লকেড’ দুর্ভোগে হলেও আফসোস নেই পথচারীদের - জনতার আওয়াজ
  • আজ দুপুর ১:৩৯, শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

বাংলা ব্লকেড’ দুর্ভোগে হলেও আফসোস নেই পথচারীদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: বুধবার, জুলাই ১০, ২০২৪ ৩:৫৯ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: বুধবার, জুলাই ১০, ২০২৪ ৩:৫৯ অপরাহ্ণ

 

জনতার আওয়াজ ডেস্ক
সরকারি চাকরির নিয়োগে কোটা পদ্ধতি বাতিল ও ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহালের দাবিতে দেশজুড়ে সকাল-সন্ধ্যা ‘ব্লকেড’ কর্মসূচি পালন করছে শিক্ষার্থী ও চাকরি প্রত্যাশীরা। ইতোমধ্যেই রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা। সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজট। ফলে দুর্ভোগে পোহাতে হচ্ছে সাধারণ পথচারীদের। তবে আফসোস নেই তাদের।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, রাজধানীর শাহবাগ, সাইন্সল্যাব, পল্টন, জিরো পয়েন্ট আগারগাঁও আশপাশের সড়কে তীব্র যানজট। ভোগান্তিতে পড়েছেন নগরবাসী। এসব সড়ক দীর্ঘ সময় ধরে বন্ধ থাকায় সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে তীব্র গরমেও পায়ে হেঁটে নিজ গন্তব্যে যাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

রাজধানীর ব্যস্ততম এলাকা পল্টন ও গুলিস্তানের জিরো পয়েন্টে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন মহিলা ও শিশুরা। গুলিস্তান ও আশপাশের কেনাকাটা করতে আসা পাইকারি ব্যবসায়ীরাও ভোগান্তিতে পড়েছেন। তবে তারা জানান, কোটা আসলে একটি বড় বৈষম্য। এই বৈষম্য থাকা ঠিক নয়। তাই শিক্ষার্থীরা যে আন্দোলন করছে। এই আন্দোলনের ফলে সাময়িক ভোগান্তি হলেও আমাদের কোন আফসোস নেই।

পথচারী সাইদুল ইসলাম বলেন, আমি যাত্রাবাড়ী যাব। বাস বন্ধ হয়ে গেছে, সিএনজি ও পাচ্ছি না। কষ্ট হচ্ছে অনেক তবুও এই বৈষম্যের অবসান হোক।

আরেক পথচারী আব্দুর রহমান জানান, রাস্তা বন্ধ করে কোন আন্দোলনে আমি সমর্থন করি না। তবে দেশে বৈষম্য থাকা ঠিক না। একটা সহাবস্থান জরুরী। যাতে জনসাধারণের ভোগান্তি পোহাতে না হয়।

এদিকে পল্টন ও জিরো পয়েন্ট মোড়ে গান-স্লোগানে ‘ব্লকেড’ পালন করছেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় তাদের ‘দফা এক দাবি এক, কোটা নট কামব্যাক’, ‘বাধা দিয়ে আন্দোলন, বন্ধ করা যাবে না’, ‘কোটা না মেধা, মেধা মেধা’, ‘আপস না সংগ্রাম, সংগ্রাম সংগ্রাম’, ‘আঠারোর পরিপত্র, পুনর্বহাল করতে হবে’, ‘কোটাপ্রথা নিপাত যাক, মেধাবীরা মুক্তি পাক’, ‘সারা বাংলায় খবর দে, কোটা প্রথার কবর দে’, ‘আমার সোনার বাংলায়, বৈষম্যের ঠাঁই নাই’, ‘জেগেছে রে জেগেছে, ছাত্র সমাজ জেগেছে’ —ইত্যাদি স্লোগান দেন।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ