বিশ্ববাজারে পণ্যের দাম আবারো ঊর্ধ্বমুখী – জনতার আওয়াজ
  • আজ রাত ২:১৯, বুধবার, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

বিশ্ববাজারে পণ্যের দাম আবারো ঊর্ধ্বমুখী

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: শনিবার, আগস্ট ২৭, ২০২২ ১:৪৫ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: শনিবার, আগস্ট ২৭, ২০২২ ১:৪৫ অপরাহ্ণ

 

করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) মহামারি ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বিশ্ববাজারে সব ধরনের পণ্যের দাম লাগামহীনভাবে বাড়ে। সংকট কাটিয়ে উঠে দেশগুলোর অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলে কিছুটা স্বস্তি ফেরে বাজারে। তবে সম্প্রতি কফি থেকে শুরু করে শস্য, জ্বালানিসহ সব ধরনের পণ্যের দাম আবারো অব্যাহতভাবে ঊর্ধ্বমুখী। অনিয়ন্ত্রিত মূল্যস্ফীতির হারের বাজারে এ সংকট নতুন করে ইন্ধন জুগিয়েছে। খবর ইপোক টাইমস।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আইসিই ফিউচারস এক্সচেঞ্জে কফির দাম ১৩ শতাংশ বেড়ে পাউন্ডপ্রতি ২ ডলার ৪০ সেন্ট দাঁড়িয়েছে, যা গত তিন মাসের সর্বোচ্চ। গত বছরের তুলনায় কৃষিপণ্যের দাম বেড়েছে ৬ শতাংশ। ব্রাজিলে খরা পরিস্থিতি কফির ফলন ও আন্তর্জাতিক সরবরাহ কমাতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিনিয়োগকারীরা। দেশটির মোট অ্যারাবিক কফির এক-তৃতীয়াংশ উৎপাদন হয় মিনাস গেরাইসে। এক সপ্তাহ ধরে অঞ্চলটিতে কোনো বৃষ্টিপাত হয়নি। জলবায়ু বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা গড় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কম হলে তা গোটা বছর ধরে প্রভাব ফেলতে পারে কফি উৎপাদনে।

ব্রাজিলে কফি উৎপাদনের নিম্নমুখিতা বৈশ্বিক কফি বাজারে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। এ ধারাবাহিকতায় ভিয়েতনামে কফি রফতানি ১৭ দশমিক ১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ১৩ হাজার ৮৫২ টনে। একই সঙ্গে কলোম্বিয়ায় কফি উৎপাদন ২২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৪৪ হাজার ব্যাগ।

সরবরাহ সংকটে গত সপ্তাহে ভুট্টার দাম প্রায় ৭ শতাংশ বেড়েছে। উত্তর গোলার্ধে প্রতিকূল জলবায়ু পরিস্থিতি ভুট্টাসহ বৈশ্বিক পণ্যবাজারে সংকট তৈরি করেছে। যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ ও চীনে তীব্র খরা পরিস্থিতিতে দাম অব্যাহতভাবে ঊর্ধ্বমুখী।

যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) তথ্য বলছে, দেশীয় ভুট্টার ৫৫ শতাংশ ভালো থেকে শ্রেষ্ঠ পর্যায়ে তালিকাভুক্ত হয়েছে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় তা ৫ শতাংশ কম।

ইউএসডিএর দ্য এনার্জি রিপোর্টের গবেষক ফিল ফ্লিন বলেন, তীব্র তাপপ্রবাহ ও খরা সয়াবিন এবং গমসহ বিভিন্ন ফসলের ফলন কমাতে ভূমিকা রাখবে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জের ধরে সরবরাহ সংকটের ঝুঁকিতে বিশ্ব। ফলে যুক্তরাষ্ট্রের মুখাপেক্ষী বাকি দেশগুলো। এমন সময় দেশটিতে খরা ও তাপপ্রবাহের কারণে ফলন কমেছে শস্যপণ্যের।

এদিকে, ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েটে (ডব্লিউটিআই) অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম গত সপ্তাহে প্রায় ৫ শতাংশ বেড়েছে। নিউইয়র্ক মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জে পণ্যটির দাম ব্যারেলপ্রতি ৯৪ ডলারের ঊর্ধ্বে রয়েছে। অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বাজার আদর্শ ব্রেন্টে জ্বালানি তেলের দাম ১০০ ডলার টপকে গিয়েছে।

এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (ইআইএ) জানিয়েছে, টানা দুই সপ্তাহ ধরে যুক্তরাষ্ট্রে জ্বালানি তেলের সরবরাহ নিম্নমুখী। গত সপ্তাহে দেশীয় অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের মজুদ ৩২ লাখ ৮২ হাজার ব্যারেল কমেছে। যদিও এর আগে বিশ্লেষকরা পূর্বাভাস দিয়েছিল মজুদ ৯ লাখ ৩৩ হাজার ব্যারেল কমবে।

জ্বালানি তেলের পাশাপাশি গ্যাসের মজুদও নিম্নমুখী। গ্যাসের মজুদ ২৭ হাজার ব্যারেল কমেছে। উৎপাদন কমেছে ৫ লাখ ৩৬ হাজার ব্যারেল। চাহিদা কমে দাঁড়িয়েছে ৮৪ লাখ ৩৪ হাজার ব্যারেল। অথচ এর আগের সপ্তাহে মজুদ ছিল ৯৩ লাখ ৪৮ হাজার ব্যারেল।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ