বেসিক থেকে অ্যাডভান্স লেভেলে যাওয়ার জন্য ৭টি অ্যাডভান্স SEO স্কিল অর্জন করুন - জনতার আওয়াজ
  • আজ সকাল ১০:৫৫, মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

বেসিক থেকে অ্যাডভান্স লেভেলে যাওয়ার জন্য ৭টি অ্যাডভান্স SEO স্কিল অর্জন করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২৩ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৫, ২০২৩ ৪:৩৮ অপরাহ্ণ

 

আপনি যদি SEO প্রফেশনে থাকেন অথবা ভবিষ্যতে এটাকে একটি পেশা হিসেবে নেওয়ার চিন্তা করছেন, তাদের জন্য এই কন্টেনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এখানে আমি আপনার SEO এক্সপার্টিজকে নতুন দিকে নিয়ে যাওয়া এর জন্য ১০টি মৌলিক স্কিল তুলে ধরতে চেষ্টা করছি।

অনেকে SEO এক্সপার্ট এক নির্দিষ্ট একাধিক এবং সীমাবদ্ধ হয়ে থাকেন, তবে প্রবর্তন করার জন্য নতুন কিছু শেখা হয় না। একটি ওয়েবসাইটকে অপটিমাইজ করা হয়তো কাজের শেষ, কিন্তু এখনো আরও অনেক কিছু শেখা আছে। আপ নি যদি এই স্কিলগুলি নিজের মধ্যে ডেভেলপ করতে চান তাদের জন্য নিজেকে একটি আরও দক্ষ, অভিজ্ঞ এবং আত্মবিশ্বাসী একজন SEO পেশাদার হিসেবে তৈরি করতে সাহায্য করতে পারেন। এটা আবশ্যক নয়, তবে এই স্কিলগুলি প্রতিটি SEO এক্সপার্ট এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ এবং আপনি যদি এগুলি অর্জন করতে পারেন তাহলে আপনি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে আরও উন্নত হতে পারবেন এবং আরও উন্নত পজিশনে থাকতে পারবেন।

১. কোডিং

কোডিং জানলে সুবিধার শেষ নেই, সহজে SEO এক্সপার্ট হোতে সহায় করে। আপনি যদি কোডিং জানেন, তাহলে ওয়েবসাইট ডিজাইন করলে সার্চ বট দ্রুত ক্রল করতে পারবে। HTML, CSS, এবং JavaScript সংক্রান্ত ধারণা সাহায্য করতে পারে। SEO প্রফেশনালদের কোডিং শিখতে হবে না, তারা যে কাজ করছেন তার উপর নির্ভর করে। কোডিং ধারণা থাকলে আপনি নিজেই পরিবর্তন করতে পারবেন, ছোটখাটো চেঞ্জের জন্য ডেভেলপারদের শরণ নেয়া হবে না। কোড কিভাবে শুরু হয় এবং শেষ হয়, মূল বিষয়গুলি এবং কোন এলিমেন্ট সাথে কোন সংজ্ঞার সাথে জড়িত তা সম্পর্কে ধারণা নিন। Python এবং SQL শেখে আপনি SEO এর ক্ষেত্রে বিভিন্ন অটোমেশন কাজ করতে পারবেন, উদাহরণস্বরূপ URL redirects ম্যাপিং এবং কীওয়ার্ড রিসার্চ।

২. সার্ভার ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে জানা

সার্ভার ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ SEO স্কিল। ওয়েবসাইটের লোড স্পীড এবং Crawling এ সার্ভারের গুরুত্ব মোলবেন। এই স্কিলটি ব্যবহার করে আপনি ওয়েবসাইটের ভিজিটরের সংখ্যা এবং রিকুয়েস্ট হ্যান্ডেলিং সাহায্য করতে পারবেন, যা SEO এক্সপার্ট হিসেবে আপনাকে এগিয়ে রাখতে সাহায্য করতে পারে।

  • ওয়েবসাইট লোড স্পীড:
    • সার্ভার ম্যানেজমেন্ট এবং CDN ব্যবহার করে ওয়েবসাইট কন্টেন্টগুলি একটি নিকটস্থ সার্ভার থেকে লোড হতে সাহায্য করতে পারে, যা লোড স্পীড বাড়ায়।
  • Crawling এর ক্ষমতা:
    • সার্ভার ম্যানেজমেন্ট স্কিলস দিয়ে সার্ভারের সেটিংস ঠিকমতো কনফিগার করে সার্চ ইঞ্জিন বটগুলি ওয়েবসাইট কন্টেন্ট সঠিকভাবে ক্রউল করতে পারে।
  • CDN ব্যবহার:
    • CDN ব্যবহার করা ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট ডেলিভারি স্পীড বাড়ায় এবং এটি বিভিন্ন লোকেশনগুলিতে কন্টেন্ট ক্যাশ করে, যা লোড স্পীড বাড়ায় এবং লোক্যাল সার্চ ইঞ্জিন সার্ভারের ক্যাচ বাড়ায়।
  • সার্ভার কোড এবং HTTP স্ট্যাটাস কোড:
    • সার্ভার ম্যানেজমেন্ট স্কিলস দিয়ে আপনি সার্ভার কোড এবং HTTP স্ট্যাটাস কোডগুলি ঠিকমতো কনফিগার করতে পারেন, যা SEO এ গুরুত্বপূর্ণ।
  • সার্ভার সাইড রিডায়েক্ট এবং ত্রুটি হ্যান্ডলিং:
    • 301 এবং 404 এরর কোডগুলি ঠিকমতো হ্যান্ডল করা এবং ত্রুটি সংশোধন করা ও সার্ভার সাইডে রিডায়েক্ট কনফিগার করা এটি SEO এর দিকে গুরুত্বপূর্ণ।
  • সার্ভার উপযুক্ত কনফিগারেশন:
    • সার্ভার সেটিংস সঠিকভাবে কনফিগার করা যেতে হবে যাতে ওয়েবসাইটের পারফরম্যান্স এবং সিকিউরিটি ভালো থাকে।

৩. কন্টেন্ট রাইটিং

কিভাবে কন্টেন্ট লিখতে হয় এটা জানা অ্যাডভান্স SEO এর জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আপনাকে অন্য কোন লিখা থেকে একটা কিছু লিখতে বল হল আপনি সেটা কোন মত লিখে ফেললেন! SEO এর জন্য এটা যথেষ্ট নয়।

আপনাকে কিভাবে SEO ফ্রেন্ডলি কন্টেন্ট লিখতে হয় সেটা জানতে হবে এবং সঠিক ভাবে সঠিক জায়গায় প্রয়োগ করতে হবে। আপনার কিওয়ার্ড খুঁজে বের করতে হবে এবং কিওয়ার্ড গুলোতে জোর দিতে হবে যাতে সার্চ ইঞ্জিন গুলো সেটা সহজে খুঁজে পায়।

কন্টেন্ট ডেভেলপমেন্টে সঠিক এডিটিং একটি মৌলিক স্কিল হিসেবে গণ্য হয়ে থাকে, যেটি কোম্পানিগুলির SEO এক্সপার্টদের কাজের অংশ হিসেবে একটি কী ক্ষমতা হিসেবে প্রস্তুত করা হয়। এডিটিং এর মাধ্যমে কন্টেন্ট যত্ন নেয়া হয় এবং সঠিকভাবে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজ করা হয়।

কন্টেন্ট রাইটিং বিষয়টি বেশ জটিল যেমন প্রথম কয়েকটা প্যারাগ্রাফে কয়েকবার কিওয়ার্ড এড করে দিলে সার্চ র‍্যাংকিং কিছুটা এগিয়ে থাকা সম্ভব তবে এতে আপনার কনভারসন এবং লয়্যালটি নষ্ট হতে পারে। সুতরাং আপনাকে জানতে হবে কিভাবে কন্টেন্ট লিখতে হয় যাতে যেন কাস্টমার পালিয়ে না গিয়ে লয়্যাল কাস্টমারে পরিণত হয়।

কপি-রাইটিং এর ক্ষেত্রেও বিষয় গুলো এক। আপনাকে কোন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে কপি-রাইটিং করতে বলা হলে আপনি অবশ্যই এমন ভাবে লিখবেন যেন এতে কাস্টমাররা কোম্পানির প্রতি আগ্রহী হয়।

কন্টেন্ট রাইটিং এ ভাল করতে হলে আপনি প্রফেশনাল কপিরাইটারদের কাছে প্রয়োজনে প্রশিক্ষণও নিতে পারেন।

৪. রিপোর্টিং

SEO এর অগ্রগতি, ফলাফল, সফলতা বা ব্যর্থতার কারণ ইত্যাদি বিষয়গুলি দূরদর্শী নজর রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই বিষয়গুলি সুসংগত করে আনতে পারলে, আপনি তার ফলে অগ্রগতি অনুভব করতে পারবেন। একজন SEO এক্সপার্ট সব সময় তার কাজে স্টেইক-হোল্ডারের চাহিদা এবং প্রত্যাশা অনুভব করতে হবে, যেইটা কোন এজেন্সি, ব্যক্তি, অথবা ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য হোক না কেন। ক্লায়েন্টের কাজ শেষে, উপযুক্ত রিপোর্ট তৈরি করে তাকে সাবধানে জানাতে হবে কীভাবে সার্চ ইঞ্জিনে এবং ব্যবসার জন্য কাজ করতে হচ্ছে। এবং কোন বিষয়গুলি ক্লায়েন্টের জন্য আরও গুরুত্বপূর্ণ, তা উপর তারা জানিয়ে দিতে হবে।

৫. SEO ফরকাস্টিং

অতীত ফলাফল বর্ণনা করার পাশাপাশি আউটকাম সম্পর্কে ধারনা করতে পারার ক্ষমতাও SEO ইন্ডাস্ট্রিতে গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক SEO ফরকাস্টিং এর জন্য পূর্ববর্তী এনালাইটিক ডাটা গুলো বিবেচনা করতে হবে। প্রতিযোগিতা, বাজার পরিবর্তন, রাজনৈতিক সংকট, এসব পরিস্থিতির মধ্যে এসে আমাদের সকল ডেটা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে। আমরা যদি পূর্ববর্তী ডেটা থেকে সার্চ ট্রাফিক, কনভারসন রেট, এবং বিভিন্ন ট্রেন্ড এনালাইস করি, তাদের ভিতরে দেখতে পারবো কি ধরণের প্যাটার্ন বা চিহ্ন আসছে। এই ডেটা আমাদেরকে সঠিক আউটকাম ফরকাস্ট করতে সাহায্য করতে পারে। SEO ফরকাস্টিং এ প্রথম কাজ হবে এই পূর্ববর্তী ডেটা গুলো নিয়ে একটা আউটলুক তৈরি করা।

৬. অন্য সার্চ ইঞ্জিনের জন্য অপটিমাইজ করা

অ্যাডভান্স SEO স্কিল অর্জন করতে চাইলে অবশ্যই Google এর বাইরেও ভাবতে হবে। সকল সার্চ ইঞ্জিন প্রিন্সিপালগুলি একই নয়, তাই আপনাকে প্রতিটি ইঞ্জিনে মাথা রাখতে হবে। সার্চ ইঞ্জিনগুলির রেজাল্টগুলি দেশের ভিন্নতা অনুভব করতে পারে, তাই আপনাকে বিশেষজ্ঞ হতে হবে।

আপনি যদি একটি দেশে তার পৃষ্ঠার জন্য SEO করতে চান, তবে আপনাকে বুঝতে হবে ঐ দেশের স্থানীয় সার্চ ইঞ্জিন কীভাবে কাজ করে এবং তাদের রেজাল্ট কেমন আসে। আপনি এই ইঞ্জিনগুলির এলগোরিদম ও প্রক্রিয়াগুলি বুঝতে পারতে অনুসন্ধান করতে হবে।

গুগলের বাইরে, আপনি অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিনেও লক্ষ্য করতে পারেন, যেমন Bing, Yahoo, এবং DuckDuckGo। এই সার্চ ইঞ্জিনগুলির রেজাল্টগুলি একে অপরের থেকে ভিন্ন হতে পারে এবং আপনার টার্গেট অডিয়েন্সের জন্য উপযুক্ত থাকতে পারে।

এছাড়াও, অন্যান্য প্ল্যাটফর্মে যেমন Pinterest, TripAdvisor এবং Quora এ কাজ করতে যুক্ত হোন। এই প্ল্যাটফর্মগুলির বিশেষ  বৈশিষ্ট্য এবং পাবলিক সার্চে আপনার সাইটকে অপটিমাইজ করতে আপনি আপনার কাজ করতে সম্পৃক্ত থাকতে পারেন।

৭. ইন্টারন্যাশনাল SEO

সর্বশেষ আলোচনা করব ইন্টারন্যাশনাল SEO নিয়ে। ইন্টারন্যাশনাল SEO মেইনটেইন করা বেশ জটিল একটি টাস্ক। যেমন আপনার ওয়েবসাইট যদি ইন্টারন্যাশনাল অডিয়েন্স এর জন্য অপটিমাইজ করতে চান তাহলে একই সাথে কয়েকটা স্কিল এর প্রতি খেয়াল রাখতে হবে যেমন,SEO, Digital PR, এবং On-page Optimization সহ বিভিন্ন দক্ষতা প্রয়োজন।

ওয়েবসাইট স্ট্র‍্যাকচারে আলাদা ডোমেইন বা সাব-ডিরেক্টরি নির্বাচন করা হবে, সেটি আপনার লক্ষ্যগুলি এবং আপনার ইন্টারন্যাশনাল স্ট্র্যাটেজির সাথে সামঞ্জস্য হতে পারে।

এমন আরও অনেক স্ট্রেটেজি রয়েছে যেগুলো ইন্টারন্যাশনাল SEO এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ।

ইন্টারন্যাশনাল অডিয়েন্সের কাছে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইট তুলে ধরতে আপনার নির্দিষ্ট ভাষা ও লোকাল বিষয়াবলী সম্পর্কেও ভাল ও পরিষ্কার ধারণা থাকতে হবে। তবে গুগল Search Central  দারুণ একটি সুবিধা নিয়ে এসেছে যার মাধ্যমে আপনি ইন্টারন্যাশনাল ওয়েবসাইট অপটিমাইজ নিয়ে ভাল ধারণা পেতে সাহায্য পাবেন ।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com