ব্যর্থ সরকারকে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে পদত্যাগ করাতে হবে : এমরান সালেহ প্রিন্স - জনতার আওয়াজ
  • আজ সকাল ১০:৩৯, শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

ব্যর্থ সরকারকে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে পদত্যাগ করাতে হবে : এমরান সালেহ প্রিন্স

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: বুধবার, মার্চ ২, ২০২২ ৫:৩৭ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: বুধবার, মার্চ ২, ২০২২ ৫:৩৭ অপরাহ্ণ

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান সালেহ প্রিন্স নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য জনগণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখতে ব্যর্থ হওয়ায় সরকারের পদত্যাগ দাবি করেন।

আজ বুধবার সকালে জামালপুরে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ দাবি করেন। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন উর্দ্ধগতি ও সর্বগ্রাসী দুর্নীতির প্রতিবাদে জেলা বিএনপির কার্যালয় সংলগ্ন সড়কে বিক্ষোভ সমাবেশ করে জামালপুর জেলা বিএনপি। জেলা বিএনপির সভাপতি ফরিদুল কবির তালুকদারের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা, বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক এড.শাহ ওয়ারেস আলী মামুন, সহ জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল প্রমুখ।

সমাবেশে এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, সরকার দেশ পরিচালনায় ব্যর্থ। তারা দূর্নীতি আর লুটপাটে ব্যাস্ত। জনগণের ভয়ে তারা নিরপেক্ষ নির্বাচন দেয় না। ভোট চুরি ও সন্ত্রাস করে ভোটাধিকার হরণ করেছে। এখন নির্বাচন কমিশন নিয়ে খেলা করছে। অনুগত, বিতর্কিত, সুবিধাভোগীদের দিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করে আবারও ভোটাধিকার হরণ করার চক্রান্ত করছে। আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটিয়ে তত্বাবধায়ক সরকার এই কমিশন বাতিল করে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করতে তিনি সর্বাত্মক আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

বিক্ষোভ সমাবেশে ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, আমি বলেছিলাম বাজারে আগুন। এই যে ভয়াবহ করোনায় কত মানুষ চাকরি হারিয়েছে, কত মানুষ বেকার হয়েছে, পেশা পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছে, আজকে অনেকের ঘরে চাল নেই, তারা ঘরের ভাড়া দিতে পারেন না; শেখ হাসিনা আপনি জবাব দেন। কিন্তু আপনি কোনো জবাব দিতে পারেননি। এই করোনায় সাড়ে ৫ কোটি থেকে ৬ কোটি মানুষ দারিদ্রসীমার নিচে চলে গেছে। আরও কত মানুষ কাজ হারিয়েছে। বহু মানুষ চিরতরে শহর ছেড়ে গ্রামে চলে গেছে এই সরকারের কাছে কোনো হিসাব নাই। সরকার বলে মাথাপিছু আয় নাকি বেড়ে গেছে, আরে মাথাপিছু আয় কারে বলে সরকারের সঙ্গে আমার সাধারণ ভাইয়ের যখন আয় যুক্ত করো তখন তো মাথাপিছু আয় বেশিই মনে হবে। এটা তো মাথাপিছু আয় না, এটা হলো লুটেরা সরকারের বানানো আয়। আজ সাধারণ মানুষের অবস্থা দিনের পর দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে। সরকারের কোনো নজর নেই।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জামালপুর জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সফিউর রহমান সফি, অ্যাডভোকেট মনজুর কাদের বাবুল খান, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম খান সজিব প্রমুখ। বিক্ষোভ সমাবেশে বিএনপিসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com