মায়ের মমতায় রাষ্ট্র পরিচালনা করলে জনগণ অবশ্যই সমর্থন দেবে: প্রধানমন্ত্রী - জনতার আওয়াজ
  • আজ রাত ১২:৫৮, মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৪শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

মায়ের মমতায় রাষ্ট্র পরিচালনা করলে জনগণ অবশ্যই সমর্থন দেবে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: মঙ্গলবার, মার্চ ৮, ২০২২ ৬:০৬ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: মঙ্গলবার, মার্চ ৮, ২০২২ ৬:০৬ অপরাহ্ণ

 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ একজন নারী কেবল নারী নয়। নারীরা হলেন মা। আর মায়ের মমতায় রাষ্ট্র পরিচালনা করলে জনগণ অবশ্যই সমর্থন দেবে। জনগণের সমর্থন ও বিশ্বাস আমি অর্জন করতে পেরেছি, এটাই আমার মূল শক্তি।’

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) দুবাই এক্সিবিশন সেন্টারে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ‘রিডিফাইনিং দ্য ফিউচার অব উইমেন’ শীর্ষক এক উচ্চ পর্যায়ের প্যানেল আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

দেশ গঠনে জাতির পিতার নেওয়া বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে সরকারপ্রধান বলেন, ‘স্বাধীনতার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের একটি সংবিধান দেন। সেই সংবিধানে বলা হয়েছে, নারী ও পুরুষ সমান অধিকার ভোগ করবে। বাংলাদেশে দীর্ঘ সংগ্রামের পথ পাড়ি দিয়ে গণতন্ত্র পাওয়ার কথা তুলে ধরার পাশপাশি স্বাধীনতার পর মাত্র সাড়ে তিন বছরের মধ্যে।

১৯৭৫ সালে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালিকে নির্মমভাবে হত্যার পর সামরিক শাসকেরা রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করলে ‘নারীরা কোনো সুযোগ পায়নি’ মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দীর্ঘ ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ফিরে ‘নারীদের উন্নয়নে কাজ শুরু করে’। আমি যখন সরকার গঠন করি, তখন দেখলাম কোথাও নারীর কোনো জায়গা ছিল না। তারা ছিল পুরোপুরি অবহেলিত।’

জাতির পিতাকে হত্যার পর ছয় বছর নির্বাসিত জীবন কাটিয়ে দেশে ফেরার কথাও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, আমি দেশটাকে জানতাম, সমস্যাগুলো কী সেটা জানতাম। আমি আমার বাবার থেকে শিখেছি। আমার বাবা আমার মেন্টর। আমি শিখেছি আমার জনগণ ও দেশকে কীভাবে ভালোবাসতে হয় এবং দরিদ্র মানুষের জন্য কীভাবে কাজ করতে হয়।’

দীর্ঘ ২১ বছর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সামরিক শাসকরা বাংলাদেশ শাসন করেছে , সে কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা জানেন এই পৃথিবীর যেখানেই সামরিক শাসকেরা শাসন করেন… তারা খুবই রক্ষণশীল। কিন্তু আমি নারীদের জন্য সব কিছু উন্মুক্ত করে দিই।’

বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এভাবেই আমি জনগণের সমর্থন অর্জন করেছি। এটাই আমার মূল শক্তি। জনগণের সমর্থন, জনগণের বিশ্বাসৃ জনগণ অনুভব করে যে আমি যদি এখানে থাকি (রাষ্ট্র ক্ষমতায়), অবশ্যই তারা লাভবান হবে।’

ছয় বছর নির্বাসিত জীবন কাটিয়ে ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধুর দল আওয়ামী লীগের হাল ধরেন শেখ হাসিনা। সেসব দিনের কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, ‘দেশে ফেরার পর তার চলার পথও মসৃণ ছিল না। সব খুনি, যুদ্ধাপরাধী, তারা সেই সময় ক্ষমতায় ছিল। কিন্তু আমি সেগুলো পরোয়া করিনি। আমি ভেবেছি আমাকে জনগণের জন্য কাজ করতে হবে।’

সরকারপ্রধান আরও বলেন, ‘একজন নারী হিসেবে অবশ্যই সমস্যা রয়েছে, কিন্তু আমাদের পুরুষ সহকর্মীরা আমাকে সহযোগিতা করেছেন বলে আমি তাদের ধন্যবাদ জানাই। এটা আমার শক্তি।’

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ