লন্ডনে জমে উঠেছে ঈদ বাজার , ক্রমাগত বাড়ছে ক্রেতাদের ভিড় - জনতার আওয়াজ
  • আজ সকাল ৯:৪৬, মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

লন্ডনে জমে উঠেছে ঈদ বাজার , ক্রমাগত বাড়ছে ক্রেতাদের ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: শুক্রবার, এপ্রিল ৫, ২০২৪ ৬:৫৪ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: শুক্রবার, এপ্রিল ৫, ২০২৪ ৬:৫৪ অপরাহ্ণ

 

আরিফ মাহফুজ , বিশেষ প্রতিনিধি লন্ডন
পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে লন্ডনে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা,ব্যস্ত সময় পার করছেন ক্রেতা -বিক্রেতা উভয়েই। বিশেষ করে পূর্ব লন্ডনের বাজারগুলোতে ঘুরে দেখা যায় বিগত বছর গুলোর চেয়ে এবারের ঈদকে সামনে রেখে প্রচুর পরিমান ক্রেতার সংখ্যা বেড়েছে বিশেষ করে করোনা চলাকালীন সময়ের ঈদ গুলোতে সবাই ছিলেন ঘরবন্দী তাই মার্কেট ছিলো একেবারে ফাঁকা কিন্তু করোনা পরবর্তী দুবছর এর ধারাবাহিকতা রয়ে গিয়েছিলো তবে এবছর সেই বাঁধ ভেঙ্গেছে। মাকের্টগুলোতে ক্রেতাদের ব্যাপক সমাগত দেখা গেলেও পন্য বিক্রি নিয়ে দোকানীদের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। বিশাল ঈদ বাজারে ট্রেডিশনলা শাড়ি , সালোয়ার কামিজ , পুরুষদের পাঞ্জাবী -পাজামা ও শিশুদের পোশাক অর্থাৎ ঈদ শপিংয়ের মূল ক্রেতারা হচ্ছেন ভাৱত বাংলাদেশী, পাকিস্থানী ও শ্রীলংকান কমুনিটির মানুষ। এসব পোশাকের সিংহ ভাগ আসে ভারত থেকে। ঈদ শপিংয়ের ক্ষেত্রে বাংলাদেশিরা ভারতীয় পণ্য বয়কটের আন্দোলনের সমর্থনে ভারত থেকে আসা পোশাক ক্রয় থেকে বিরত থাকতে চেষ্টা করছেন তবে দোকানিরা বলছেন এর প্রভাবঃ অত্যন্ত কম কারণ ব্রিটিশ বাংলদেশী যাঁরা আছেন তাঁরা এবিষটি আমলে নিচ্ছেন না তবে ব্রিটিশ নয় বা নতুন বাংলদেশ থেকে এসেছেন এমন কিছু মানুষ ভারতীয় পোশাক কেনাকাটা থেকে বিরত থাকছেন তবে লন্ডনে কাপড়ের মার্কেট বলতেই ইন্ডিয়ান মার্কেট সেখানে তারা নিজেদের ঈদ পোশাকের চাহিদা মেটাবেন কি করে ? তবে ভারতীয় দোকানদাররা বছেন তাঁরা এ বিষয়টি ফেস করছেন না।
সামগ্রিক ভাবে মাকের্টগুলোতে ক্রেতাদের ব্যাপক সমাগত দেখা গেলেও পন্য বিক্রি নিয়ে দোকানীদের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। ক্রেতারা বলছেন, দোকানগুলোতে চাহিদা অনুযায়ী মালামাল নেই। মূল্যও বেশি। তবে বিক্রেতারা বলছেন, মূল্য বাড়েনি। ক্রেতারা বলছেন বহু দোকান ঘুরেও মিলছেনা চাহিদা অনুযায়ী পন্য। একই সাথে অন্যান্য বছরের তুলনায় কেনাকাটায় মূল্য দিতে হচ্ছে বেশি বলে অভিযোগ ক্রেতাদের।
এদিকে দোকানীরা বলছেন, বরাবরের মত এবারো ঈদে আবায়া এবং পাঞ্জাবিই বিক্রি হচ্ছে বেশি।
তবে ক্রেতারা বলছেন চাহিদা মেটাতে তাঁরা অনলাইনেও শপিং করছেন।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com