সংসদে একতরফা কথা হচ্ছে: জিএম কাদের - জনতার আওয়াজ
  • আজ সন্ধ্যা ৭:৫২, শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি
  • jonotarawaz24@gmail.com
  • ঢাকা, বাংলাদেশ

সংসদে একতরফা কথা হচ্ছে: জিএম কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, জনতার আওয়াজ ডটকম
প্রকাশের তারিখ: শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৪ ১১:৫৯ অপরাহ্ণ পরিবর্তনের তারিখ: শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২৪ ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

 

রংপুর প্রতিনিধি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদে বিরোধীদলের সংখ্যা কম হওয়ায় একতরফা কথা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

তিনি বলেন, সংসদ বিরোধীদলের সংখ্যায় কম থাকায় মোটামুটি গতানুগতিকভাবেই চলছে সংসদে। সরকারের পক্ষেই বেশির ভাগ কথাবার্তা হচ্ছে। সংসদ আরও সুন্দর কার্যকর হয় যদি উত্তপ্ত হয়। যদি উভয় পক্ষই সমান সমানভাবে কথাবার্তা বলে তাহলেই সংসদটা সত্যিকার অর্থে কার্যকর এবং প্রাণবন্ত হয়। সেটা এখন পর্যন্ত হয়নি।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে তিন দিনের সফরে রংপুর এসে সেনপাড়াস্থ বাসভবন স্কাইভিউয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জিএম কাদের এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী হওয়া নিয়ে প্রশ্ন করা হলে জিএম কাদের বলেন, আসলে বিরোধীদল হলে মন্ত্রী হওয়াটা স্বাভাবিক নয়। যদি ন্যাশনাল গভর্নমেন্ট হয় সেখানে বিরোধীদল থাকে না। সব দল থেকে নিয়েই মন্ত্রিপরিষদ করা হয়। তখন বিরোধীদল হিসেবে রোল প্লে করা যাবে না। কেননা বিরোধীদল হলে সরকারের বিপক্ষের শক্তি হতে হয়, মন্ত্রী হলে তো সরকারের পার্ট হয়ে গেলাম, তখন সেখানে আর বিরোধীদল হওয়ার কিছু থাকে না।

তিনি আরও বলেন, সংসদে বিরোধীদল সরকারের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করবে। আর সরকার মানে হলো সম্পূর্ণ মন্ত্রিসভা একত্রিতভাবে সরকার তো মন্ত্রিসভা কেন্দ্র করে। যদি আমরা অ্যাকাউন্টেবল করতে চাই, তার দোষ ত্রুটি তুলে ধরতে চাই, তাহলে তো আমি মন্ত্রিসভার সদস্য হয়ে এটা সম্ভব না। সবাই মিলে দেশ পরিচালনা করব। কিছুদিনের জন্যই তো অনেক দেশে হয়ে থাকে কোনো ক্রাইসিস হলে। তবে এ রকম কোনো অফার আমরা পাইনি। যদি সে রকম কোনো অফার আসে তখন সব কিছু বিবেচনা করে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।

মিয়ানমার প্রসঙ্গে জিএম কাদের বলেন, মিয়ানমারে যে গৃহযুদ্ধ এটা একেবারে আমাদের বর্ডারে রাখাইন এলাকা চট্টগ্রাম-কক্সবাজার বর্ডার পর্যন্ত এটা চলে আসছে। তাদের যারা পালিয়ে আমাদের এখানে আশ্রয় নিচ্ছে। এটা এখন একটা বড় ধরনের ক্রাইসিস। সামনের দিকে কোন পর্যায় পর্যন্ত যাবে সেটা নিয়ে আমরা নিশ্চিত নই। এটা আমাদের জন্য খুব উদ্বেগের।

এ সময় জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ও রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, দলের ভাইস-চেয়ারম্যান ও মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির, রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব আব্দুর রাজ্জাক, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও রংপুর মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসীর, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর জেলা সদস্য সচিব হাজী আব্দুর রাজ্জাক, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক মো. শাফিউর রহমান শাফি, কেন্দ্রীয় সদস্য ও রংপুর মহানগরের সিনিয়র সহ-সভাপতি লোকমান হোসেনসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
 
 
জনতার আওয়াজ/আ আ
 

জনপ্রিয় সংবাদ

 

সর্বোচ্চ পঠিত সংবাদ